আমেরিকার অ্যাওয়ার্ড প্রধানমন্ত্রীকে উৎসর্গ করলেন রবিন

আমেরিকার অ্যাওয়ার্ড প্রধানমন্ত্রীকে উৎসর্গ করলেন রবিন

আমেরিকার ৫৩তম ওয়ার্ল্ড ফিস্ট-হুইস্টন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ‘স্পেশাল জুরি রেমি এওয়ার্ড’ এ ভূষিত হয়েছে নোমান রবিন পরিচালিত ‘ব্লসমস ফ্রম অ্যাশ’, বা ‘ফুল থেকে ছাই’ চলচ্চিত্রটি। উৎসব কমিটি অফিশিয়াল ইমেইলের মাধ্যমে প্রযোজক এলেকজেন্ডার ব্লামকে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

ইমেইলে বলা হয়েছে, এর আগে এই জুরি এওয়ার্ডে ভূষিত হয়েছেন, স্পিলবার্গ, রান্ডাল ক্লিজার, জর্জ লুকাস, জন লি হ্যান্ডকক, আং লি, দি কইন ব্রাদার্সসহ আরো অনেক জগত বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক।

নোমান রবিন বলেন, ‘নিঃসন্দেহে এটি আমার চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের এযাবৎকালের সর্বোচ্চ অর্জন। এই চলচ্চিত্র উৎসবকে ডক্যুমেন্টারি চলচ্চিত্রের দুনিয়ায় অস্কার বলা হয়ে থাকে। বিশেষ করে যে বিভাগে জুরি এওয়ার্ড পেয়েছি তা অনেক গুরুত্বপূর্ণঃ পলিটিকাল ও আন্তর্জাতিক ইস্যু।

প্রথম বাংলাদেশি রেমি এওয়ার্ড বিজয়ী হিসেবে অত্যন্ত গর্বীত। পুরুষ্কারটি আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে প্রতি উৎসর্গ করলাম। কারণ, তার বলিষ্ঠ ভূমিকা রোহিঙ্গা ইস্যুকে বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের মান ও সম্মানকে অন্যন্য উচ্চতার নিয়ে গেছে।’

আমেরিকার ব্লাম ফ্যালিমি ফাউন্ডেশন প্রযোজিত রোহিঙ্গাদের ৩০০ বছরের ইতিহাস ও গণহত্যার উপর নির্মিত গবেষণামূলক পলিটিকাল তথ্যচিত্র এটি।

প্রযোজক ব্লাম বলেন, ‘আমেরিকার নিউজ মিডিয়ায় বার বার রোহিঙ্গা বিষয় খবর দেখে আমার মন দুঃখ ভারাক্রান্ত হয়ে পড়ে। আমি সিদ্ধান্ত নেই যে, গণহত্যার উপর সত্য তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে একটি গুরুত্বপূর্ণ চলচ্চিত্র নির্মাণ করে বাংলাদেশের জনগনের পাশে থাকতে।

কারণ বাংলাদেশের উপর অন্যায়ভাবে প্রায় ১২ লক্ষ রোহিঙ্গা শরনার্থী চাপিয়ে দেয়া হয়েছে। আমি গর্বিত নোমান রবিন ও তার দক্ষ ও সাহসী টিম আমার সেই স্বপনকে সফলভাবে বাস্তবায়ন করেছেন। আমি ধন্যবাদ দিতে চাই দক্ষ সিনেমাটোগ্রাফার সারুন মানান্ধার, এডিটর ক্রিস্টফার ক্লিন্টন কুবে, কন্ঠ শিল্পী টিজে ফারায়াজি, সঙ্গীত পরিচালক প্রত্যয় খান, সহ-প্রযোজক মাহমুদুল হাসান সুমন, সুপারভাইজার সাম্য সবুর, লাইন প্রডিউসার আহাদসহ এই চলচ্চিত্রের সাথে জড়িত দেশ বিদেশের সকল সদস্যদের।’

এমএবি/পিআর