বাড়িখেলাধুলাক্রিকেট‘এখনও সেই ম্যাচের দুঃস্বপ্ন দেখি’

‘এখনও সেই ম্যাচের দুঃস্বপ্ন দেখি’

সবশেষ ওয়ানডে বিশ্বকাপের হট ফেবারিট দুই দল ছিল ইংল্যান্ড ও ভারত। বেশিরভাগ ক্রিকেটবোদ্ধারই ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন এ দুই দলের মধ্যেই হবে ফাইনাল ম্যাচটি। ঠিকই ফাইনালে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড (পরে জেতে শিরোপাও) কিন্তু সেমিফাইনালে হেরে যায় ভারত। ফলে হয়নি ভারত-ইংল্যান্ড ফাইনাল।

সেমিফাইনালের সেই পরাজয়ের কথা এখনও ভুলতে পারেন না ভারতীয় ওপেনার লোকেশ রাহুল। অথচ বোলারদের অসাধারণ পারফরম্যান্সের কল্যাণে জয়টা হাতের কাছেই ছিল ভারতের। ফাইনালে যেতে করতে হতো মাত্র ২৪০ রান।

কিন্তু রাহুলসহ টপঅর্ডারদের ব্যর্থতায় তা হয়নি। মাত্র ২৪ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। যার মধ্যে ছিলেন রাহুলও। দলীয় ৫ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ১ রানে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন তিনি। সেই ম্যাচের স্মৃতি এখনও দুঃস্বপ্ন হয়ে তাড়িয়ে বেড়ায় তাকে।

অথচ সেমিফাইনালের আগের ম্যাচেই রাহুল খেলেছিলেন ১১১ রানের ইনিংস, তার আগেরটিতে করেছিলেন ৭৭ রান। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ সেমিফাইনালে মাত্র ১ রানেই থেমে যায় তার ব্যাট। ক্যারিয়ারের অন্যতম বাজে সময় হিসেবে সে ম্যাচটিকেই রাখছেন তিনি।

এক ভিডিও সাক্ষাৎকারে কোন ম্যাচের স্মৃতি এখনও ভুলতে পারেন না, জানতে চাওয়া হলে রাহুল বলেন, ‘এটা অবশ্যই বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল। আমার মতে, দলের অনেকেই এখনও সেই পরাজয় মানতে পারেন না। এখনও সেই ম্যাচ আমাদের তাড়িয়ে বেড়ায়।’

‘আমি কল্পনাও করতে পারি না সিনিয়র খেলোয়াড়দের মধ্যে কেমন ছিল তখনকার অনুভূতি। তবে আপনি জানেন বিশ্বকাপের পুরোটা আসর এত ভালো খেলার পর এমন একটা ম্যাচ সত্যিই সবকিছু কঠিন করে দেয়। হ্যাঁ!আমি এখনও সেই ম্যাচের দুঃস্বপ্ন দেখে জেগে উঠি।’

পরিস্থিতি হালকা করতে সঞ্চালক রাহুলকে জিজ্ঞেস করেন, নিজের জীবনের জন্য কোন ব্যাটসম্যানকে বেছে নেবেন? উত্তরে তিনি বলেন, ‘এটার জন্য বিরাট কোহলির কথাই বলব। কারণ আমি জানি, সবাই জানে সে একজন কিংবদন্তি খেলোয়াড়। আমাদের বন্ধুত্বও দারুণ। আমি জানি, আমাকে বাঁচানোর জন্য নিজের সবটুকু দিয়ে দেবে সে।’

এসএএস/পিআর

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments