বাড়িঅন্যান্য খবর‘খাদ্য ফান্ডে’ নারী কাউন্সিলরদের না রাখায় কর্মসূচি ঘোষণা

‘খাদ্য ফান্ডে’ নারী কাউন্সিলরদের না রাখায় কর্মসূচি ঘোষণা

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সিলেট সিটি করপোরেশন ‘খাদ্য ফান্ড’ গঠন করে নগরের প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছে। কিন্তু ওই কমিটিতে কোনো নারী কাউন্সিলরদের রাখা হয়নি। এর প্রতিবাদে সিটি করপোরেশনের নারী কাউন্সিলররা ক্ষুব্ধ হয়ে অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন।

বুধবার দুপুরে সিসিকের প্যানেল মেয়র অ্যাডভোকেট রোকসানা বেগম শাহনাজের সভাপতিত্বে একটি জরুরি সভায় নয়জন কাউন্সিলর সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

ওই সভায় কাউন্সিলররা বলেন, রহস্যজনক কারণে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী অন্যায়ভাবে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরদের ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে সম্পৃক্ত করছেন না।

সভায় নারী কাউন্সিলররা আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে শত শত মেট্রিক টন চাল ক্রমান্বয়ে বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে। সিলেটের বিত্তশালী ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সিসিকের নিজস্ব তহবিল থেকে অর্থ নিয়ে ‘খাদ্য ফান্ড’ গঠন করে অসহায় অসচ্ছল মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করছে। কিন্তু এ বিষয়ে মেয়র আরিফ স্বেচ্ছাচারী মনোভাব নিয়ে আমাদের ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে সম্পৃক্ত করেননি। অথচ আমরা জনগণের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত। তিন ওয়ার্ড নিয়ে আমাদের একেক জনের এলাকা। আমরা জনগণের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হয়েছি, সুতরাং জনগণের প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা রয়েছে।

তারা বলেন, সিসিকের কাউন্সিলর হিসেবে মেয়র আমাদের উপেক্ষা বা বঞ্চিত করতে পারেন না। নির্বাচিত কাউন্সিলর হিসেবে প্রতিনিয়ত ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষ ত্রাণের জন্য চাপ দেয়। তাছাড়া পুরুষ কাউন্সিলরদের বিরুদ্ধে কোনো কোনো এলাকায় স্বজনপ্রীতি ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

সভায় কাউন্সিলররা আরও বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর টেলি কনফারেন্সের সভাসহ অন্য সব কার্যক্রমের চিঠি বা অনুলিপিও আমরা পাইনি। আমরা বিশ্বাস করি ও আশা করি মেয়র আমাদের দাবির প্রতি সহনশীল হয়ে বৈষম্যমূলক আচরণ থেকে সরে আসবেন।

কাউন্সিলর রোকসানা বেগম আগামীকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় সিটি করপোরেশনের ফটকের সামনে মেয়র আরিফের স্বেচ্ছাচারী মনোভাব, ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে সম্পৃক্ত না করার প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, আমাদের দাবি মানা না হলে মেয়রের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনা হবে। তিনি সবাইকে আগামীকাল বৃহস্পতিবারের অবস্থান কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের আহ্বান জানান।

সভায় উপস্থিত ছিলেন ১, ২ ও ৩ (সংরক্ষিত ১) ওয়ার্ড কাউন্সিলর অ্যাডভোকেট সালমা সুলতানা। ৪, ৫ ও ৬ (২) ওয়ার্ড কাউন্সিলর কুলসুমা বেগম পপি। ৭, ৮ ও ৯ (৩) ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেবেকা বেগম। ১০, ১১ ও ১২ (৪) ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাসুদা সুলতানা। ১৬, ১৭ ও ১৮ (৬) ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহানারা বেগম। ১৯, ২০ ও ২১ (৭) ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজনীন আক্তার কনা এবং ২২, ২৩ ও ২৪ (৮) ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেবেকা আক্তার লাকী।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments