বাড়িকরোনাভাইরাসচট্টগ্রামে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৭, মোট ৫৫

চট্টগ্রামে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৭, মোট ৫৫

চট্টগ্রামে আরও ৭ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। রোববার ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ট্রপিক্যাল ইনফেকশাস ডিজিজেসের (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ১০১টি নমুনা পরীক্ষার পর তাদের রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

এছাড়া রাজবাড়ী থেকে ফেরা একজনের নমুনা পজিটিভ হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সবমিলিয়ে চট্টগ্রামে মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৫ জনে।

রোববার (২৬ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে রোববার ১০১টি নমুনা পরীক্ষায় ১০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার ৬ জন, নগরের দামপাড়র ১ জন ও লক্ষ্মীপুরে ৩ জন রোগী পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রামের স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৬ মার্চ চট্টগ্রামে করোনার নমুনা পরীক্ষা শুরু হয়। চট্টগ্রামে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় ৩ এপ্রিল। নগরীর দামপাড়ায় ৬৭ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি তার ওমরাফেরত মেয়ের মাধ্যমে সংক্রমিত হন বলে ধারনা করা হয়। এখন পর্যন্ত তিনি করোনা পজিটিভ আছেন। পরে ৫ এপ্রিল দ্বিতীয় করোনারোগী শনাক্ত হন ওই ব্যক্তির ২৫ বছর বয়সী ছেলে।

৮ এপ্রিল চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হন তিনজন। একদিন বিরতি দিয়ে ১০ এপ্রিল বিআইটিআইডিতে নমুনা পরীক্ষায় আরও দুইজন করোনা পজিটিভ পাওয়া যায়। এরপর ১১ এপ্রিল চট্টগ্রামে করোনারোগী শনাক্ত হন তিনজন। ১২ এপ্রিল চট্টগ্রামে সে সংখ্যা বেড়ে পাঁচজনে দাঁড়ায়। আক্রান্তদের একজন শিশু ওই দিন দিবাগত রাতে জেনারেল হাসপাতালে মারা যায়। এছাড়া এদিন ট্রাফিক পুলিশের এক সদস্যও করোনা আক্রান্ত হন।

গত ১৩ এপ্রিল চট্টগ্রামে শনাক্ত হওয়া দুই রোগীর একজন নারী করোনা শনাক্তের আগেই আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় মারা যান। ১৪ এপ্রিল সর্বোচ্চ ১১ জনের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে চট্টগ্রামে। এর মধ্যে এক চিকিৎসক, সাতকানিয়ার পাঁচ যুবক ও নগরের সাগরিকা এলাকার এক পরিবারের চারজন করোনায় আক্রান্ত হন। এর পরের চারদিন ১৫, ১৬, ১৭ ও ১৮ এপ্রিল আক্রান্তের সংখ্যা কমে হয় যথাক্রমে ৫, ১,১ ও ১ জনে।

তবে ১৯ এপ্রিল হঠাৎ চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যায়। এ দিন ৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এছাড়া পুরনো এক রোগীর আবারও করোনা পজিটিভ আসে। ২১ এপ্রিল নতুন একজন করোনা শনাক্ত হওয়ায় জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ায় ৪০ জনে। ২২ এপ্রিল নতুন ৩ করোনা শনাক্ত হয়। ২৪ এপ্রিল নগরের দামপাড়ায় আরও একজন রোগী শনাক্ত হয়। গতকাল ২৫ এপ্রিল আরও দুজন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়। সর্বশেষ রোববার এক লাফে ৭ জন শনাক্ত হওয়ায় মোট রোগীর সংখ্যা দাঁড়লো ৫৫ জনে।

এছাড়া ঢাকা ও রাজবাড়ীতে করানো শনাক্ত দুই ব্যক্তি চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হওয়ায় চট্টগ্রামে এখন করোনা রোগীর সংখ্যা ৫৮ জন।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে এক শিশু, দুই বৃদ্ধ ও দুই নারীসহ মোট পাঁচজন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এছাড়া আইসোলশনে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন পাঁচজন। মৃত্যুর পর তাদের পাঁচজনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ পাওয়া যায়। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন মোট ১২ জন। এখনও ২৮ জন আইসোলেশনে ভর্তি আছেন।

আবু আজাদ/এমএসএইচ

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments