জাপানে জরুরি অবস্থা আরও একমাস বাড়ল

জাপানে জরুরি অবস্থা আরও একমাস বাড়ল

মহামারি করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে জরুরি অবস্থার মেয়াদ আরও প্রায় একমাস বাড়াল জাপান সরকার। গত ৮ এপ্রিল প্রথমবারের মতো জাপানে একমাসের জরুরি অবস্থা জারি হয়; যার মেয়াদ শেষ হবে আগামীকাল ৬ মে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী, দেশব্যাপী জরুরি অবস্থার মেয়াদ ৩১ মে পর্যন্ত বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে জাপান  সরকার। সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনার পর জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ানোর এই ঘোষণা দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে।

করোনার বিস্তার রোধে আইন প্রণয়ন করে রাজধানী টোকিওসহ দ্বীপরাষ্ট্রটির আরও ছয়টি অঞ্চলে মাসব্যাপী জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা দেন আবে। পরে অবশ্য তা পুরো দেশজুড়ে করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী আবে বলেন, ‘আগামী ৭ মে থেকে ৩১ মে পর্যন্ত আমরা জরুরি অবস্থা কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যেভাবে জরুরি অবস্থা চলছিল ঠিক একই নিয়মে চলবে। এই সময়ের মধ্যে জরুরি অবস্থা পরবর্তী সময়ে করণীয় নিয়ে আলোচনা করবো আমরা।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। এরপরও প্রাণহানি কমাতে আমাদের সর্তক থাকতে হবে।’ জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে ৮০ শতাংশ মানুষকে ঘরে রাখা গেছে বলে তিনি দাবি করেছেন আবে।

সোমবার সরকারের বিশেষ প্যানেলের বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন ঘোষণা দেন তিনি। নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে জাপানে ১৫ হাজারের মতো শনাক্ত রোগীর প্রায় সাড়ে ৫০০ জন মারা গেছেন।

সংবিধান অনুযায়ী জাপানের প্রধানমন্ত্রী জরুরি অবস্থা ঘোষণা করতে পারকেন না। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারি করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হলে  গতমাসে সংসদে এক বিলে জরুরি অবস্থা জারির বিল পাশ হয়। তারপর তিনি জরুরি অবস্থা জারির ক্ষমতা পান।