দরিদ্র শিশুদের ত্রাণকর্তার ভূমিকায় র‍্যাব কর্মকর্তা মোজাম্মেল

দরিদ্র শিশুদের ত্রাণকর্তার ভূমিকায় র‍্যাব কর্মকর্তা মোজাম্মেল
  • 1
    Share

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে মাদরাসা বন্ধ। তাই অভাবের কারণে পরিবারের সঙ্গে পান্তা ভাত খেয়েই সেহেরি করছিল মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার সাটুরিয়া ইউনিয়নের বাছট বৈলতলা মোকদমপাড়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার হেফজ বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিষয়টি জেনে তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়ান র‍্যাব-৪ এর অধিনায়ক অ্যাডিশনাল ডিআইজি মো. মোজাম্মেল হক।

রোববার (২৬ এপ্রিল) বিকেলে তিনি হেফজ বিভাগের সব শিশু এবং তাদের পরিবারের জন্য উপহার সামগ্রী পাঠান।

বাছট বৈলতলা মোকদমপাড়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার মোহতামিম হাফেজ ক্বারী আব্দুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, র‍্যাব-৪ এর প্রধান মোজাম্মেল হকের পক্ষে সহকারী উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম রোববার বিকেলে উপহার সামগ্রী মাদরাসায় এসে আমার কাছে দিয়ে গেছেন। আমি শিশুদের পক্ষে সেগুলো গ্রহণ করেছি।

এই বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে মোজাম্মেল হক বলেন, ফেসবুকে মাদরাসার শিশুদের কথা শুনে খুব খারাপ লেগেছিল। তাই এই শিশুদের এবং তাদের অসচ্ছল পরিবারের জন্য উপহার হিসেবে কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস পাঠিয়েছি।

দুস্থদের সাহায্যে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, র‍্যাব তার সাধ্যমত মানবিক সাহায্য প্রদান করে আসছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এটি অব্যাহত থাকবে।

উপহার সামগ্রী হস্তান্তরের সময় সাটুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন পিন্টু, সবুজ পরিবেশ আন্দোলনের মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রাজ্জাক হোসাইন রাজ, সাটুরিয়া প্রেসক্লাবের সাবক সভাপতি অলক রায়, বাছট বৈলতলা মোকদমপাড়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার ক্যাশিয়ার তোফাজ্জ্বল হোসেন মেম্বার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম এবং হাসিবুল ইসলাম সোহেলসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এআর/এমএসএইচ