ফিরে গেলেন আরও ২২০ অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক

ফিরে গেলেন আরও ২২০ অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক
  • 1
    Share

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে আরও ২২০ জন অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক নিজ দেশের উদ্দেশে বাংলাদেশ ত্যাগ করেছেন।

শনিবার (৯ মে) শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায় বলে জানিয়েছে ঢাকার অস্ট্রেলিয়ান হাই কমিশন।

তিন সপ্তাহের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো নিজ দেশের নাগরিকদের ফেরত নিলো অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়ান হাইকমিশন জানায়, ফ্লাইটটিতে আট জন নিউজিল্যান্ডের নাগরিক এবং স্থায়ী বাসিন্দাও ছিলেন।

এর আগে ১৬ এপ্রিল বাংলাদেশ ছেড়ে যাওয়া ২৮৫ জনসহ এই নিয়ে ৫০০ এর বেশি অস্ট্রেলিয়ান নাগরিককে দেশে ফিরে যেতে সাহায্য করল হাইকমিশন।

এ সময় অস্ট্রেলিয়ান হাইকমিশনার জেরেমি ব্রুয়ার বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন এবং বিদায়ী যাত্রীদের সঙ্গে আলাপ করেন। পুরো প্রক্রিয়াটি সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য বিমানবন্দরে অস্ট্রেলিয়ান হাইকমিশনের কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

হাইকমিশনার বলেন, কোভিড-১৯ -এর কারণে এখনও বাংলাদেশ থেকে যাত্রীবাহী বিমান চলাচল স্থগিত রয়েছে। মহামারি মোকাবিলায় আমাদের বিশ্বব্যাপী প্রতিক্রিয়ার অংশ হিসেবে নিরলস চেষ্টা করে চলেছি যাতে অস্ট্রেলিয়ানরা দেশে ফিরতে পারে। শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্স এবং বাংলাদেশ সরকারের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ তাদেরকে অস্ট্রেলিয়া পৌঁছাতে সহায়তা করার জন্য।

দ্বিতীয় ফ্লাইটটির জন্য অস্ট্রেলিয়ান হাইকমিশনের কর্মকর্তারা একসঙ্গে কাজ করেছেন বাংলাদেশের পররষ্ট্রমন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক), স্থানীয় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং বিমানবন্দর কর্মকর্তাদের সঙ্গে।

কোভিড-১৯ মহামারি শুরু হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়া সরকার প্রায় ১৫ হাজার নাগরিককে বিদেশ থেকে দেশে ফিরে আসতে সাহায্য করেছে।