বিএসইসির ওয়েবসাইট থেকে সরলো নিজামীর নাম

বিএসইসির ওয়েবসাইট থেকে সরলো নিজামীর নাম

প্রতিবেদনের পর বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ওয়েবসাইট থেকে কমিশনার হিসেবে অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন নিজামীর নাম সরিয়ে নেয়া হয়েছে। বুধবার নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির ওয়েবসাইট থেকে তার নাম সরিয়ে ফেলা হয়।

দীর্ঘ ৯ বছর বিএসইসির কমিশনারের দায়িত্ব পালন করা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন নিজামীর চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের মেয়াদ শেষ হয় গত ৩ মে। এরপর দু’দিন কেটে গেলেও মঙ্গলবারও বিএসইসির ওয়েবসাইটে কমিশনার হিসেবে নিজামীর নাম ছিল।

অথচ এর আগে গত ১৮ এপ্রিল বিএসইসির কমিশনারের পদ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের অধ্যাপক স্বপন কুমার বালা বিদায় নিলে ওই দিনই বিএসইসির ওয়েবসাইট থেকে তার নাম বাদ দেয়া হয়।

এ বিষয়ে গতকাল মঙ্গলবার জাগো নিউজে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। ওই প্রতিবেদন প্রকাশের পরের দিনই বিএসইসির ওয়েবসাইট থেকে হেলাল উদ্দিন নিজামীর নাম সরিয়ে ফেলা হল। নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির ওয়েবসাইটে কমিশনার হিসেবে এখন শুধু খোন্দকার কামালউজ্জামানের নাম রয়েছে।

২০১০ সালে মহাধসের পর তদন্ত কমিটির সুপারিশে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি পূনর্গঠন করে সরকার। এরই অংশ হিসেবে ২০১১ সালে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির দায়িত্ব পান অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন নিজামী। দীর্ঘ ৯ বছর দায়িত্ব পালনের পর তিনি বিএসইসি থেকে বিদায় নিলেন।

এদিকে বিএসইসির কমিশনার পদ থেকে বিদায় নিলেও হেলাল উদ্দিন নিজামী নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির চেয়ারম্যান হিসেবে ফিরে আসতে পারেন বলে গুঞ্জন রয়েছে। তবে শেয়ারবাজারের স্টেকহোল্ডারদের বড় অংশই নিজামীর বিপক্ষে রয়েছেন। বিভিন্ন প্রোগ্রামে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) কঠোর সমালোচনা করায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অধ্যাপক প্রভাবশালী স্টেকহোল্ডারদের চক্ষুশূলে পরিণত হয়েছেন।