বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র হত্যা : আন্দোলনে মুখর শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র হত্যা : আন্দোলনে মুখর শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা
  • 1
    Share

ময়মনসিংহের একটি ছাত্রাবাসে ঢুকে তৌহিদুল ইসলাম নামে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাককানইবি) এক ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যার প্রতিবাদে ৬ দফা দাবিতে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থীরা।

রোববার বেলা ১১টায় ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ডে তৌহিদের বন্ধুবান্ধব, বিশ্ববিদ্যালয়ের আশপাশে অবস্থানরত শিক্ষার্থী ও ত্রিশালের সাধারণ জনগণ মানববন্ধনে অংশ নেন। এরপর দুপুর সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে উত্থাপিত দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দোষীদের গ্রেফতার, প্রকৃত খুনিদের ফাঁসি, বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে মামলা করার ব্যবস্থা করা, মামলার সব ব্যয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের বহন করা, মেসে অবস্থানকারী শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত এবং ছাত্র-শিক্ষকের জন্য সর্বোচ্চ সুরক্ষা সেল গঠন।

মানববন্ধনে বক্তারা তৌহিদ হত্যার সাথে জড়িত খুনিদের দ্রুত গ্রেফতার করে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিতের দাবি জানান।

jagonews24

এদিকে এ হত্যাকাণ্ডের পর থেকে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ নির্মম এ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছেন।

করোনার ছোবল থেকে বাঁচতে ঘর থেকে বের না হয়েই আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যারিয়ার ক্লাব, স্কিল ডেভেলপমেন্ট ক্লাব, প্রথম আলো বন্ধুসভা, সাংবাদিক সমিতি, প্রেস ক্লাবসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠন।

খুনিদের আটক করার অগ্রগতি সম্পর্কে ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আল-আমিন বলেন, আমরা কাজ করছি, তৌহিদের বন্ধু-বান্ধবদের জিজ্ঞাসাবাদ করছি, তবে আমরা এখনও মূল খুনি পর্যন্ত পৌঁছাতে পারিনি।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১ মে) ভোররাতে ময়মনসিংহ শহরের একটি মেসে ঢুকে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী তৌহিদুল ইসলামকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।