বেতন ভাতা প্রদানের শর্তে বনানীর সড়ক ছাড়ল গার্মেন্টস শ্রমিকরা

বেতন ভাতা প্রদানের শর্তে বনানীর সড়ক ছাড়ল গার্মেন্টস শ্রমিকরা
  • 2
    Shares

শ্রমিকদের বেতন-ভাতা ও ক্ষতিপূরণ পরিশোধের শর্তে লে-অফ বা সাময়িক কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করেছে আফকো আবেদীন নামে বনানীর গার্মেন্টস কর্তৃপক্ষ।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকায় প্রধান সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে গার্মেন্টস শ্রমিকরা। শ্রমিকদের অবরোধের কারণে এ সময় রাস্তায় জরুরি সেবার যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তবে দুপুর দেড়টার দিকে শ্রমিকরা সড়ক ছেড়ে দেয়ায় ফের যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

বনানী থানার পেট্রল ইন্সপেক্টর আব্দুল মতিন জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, করোনায় সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর অন্যান্য কারখানার মতো এই প্রতিষ্ঠানটিও বন্ধ হয়ে যায়। লকডাউনের কারণে অনেক অর্ডারও বাতিল হয়ে যায় সাব কনডাক্টে কাজ করা গার্মেন্টসটির। তবে সম্প্রতি অন্যান্য গার্মেন্টস খুলতে শুরু করলেও আফকো আবেদীন গার্মেন্টস খুলেনি।

তিনি বলেন, রোববারও এসব নিয়ে বিজিএমইএ, কলকারখানা পরিদর্শন অধিদফতর এবং কারখানা মালিকপক্ষ বৈঠক করলেও সমাধান হয়নি। ফলে সোমবার সকালেও শ্রমিকরা রাস্তা অবরোধ করে।

পরে দুপুরে গার্মেন্টস কর্তৃপক্ষ, বিজিএমইএ এবং কলকারখানা পরিদর্শন অধিদফতর বৈঠক করে। শ্রমিকদের বেতন-ভাতা ও ক্ষতিপূরণ পরিশোধের শর্তে লে-অফ বা সাময়িক কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করেছে আফকো আবেদীন গার্মেন্টস কর্তৃপক্ষ। শ্রম আইনে লে-অফের ক্ষতিপূরণ হিসেবে মূল বেতনের অর্ধেকের পাশাপাশি বাড়ি ভাড়ার পুরো অংশ পাবে শ্রমিকরা। একই সঙ্গে বোনাসও পাবে পুরোটাই। তবে আনুষঙ্গিক ভাতা যেমন চিকিৎসা ভাতা, যাতায়াত ভাতা পাবেন না শ্রমিকরা।

ইন্সপেক্টর আব্দুল মতিন বলেন, শ্রমিকরা দাবি-দাওয়া পূরণের শর্তে লে অফ মেনে নিয়ে অবরোধ তুলে নিয়েছে। এখন যান চলাচল স্বাভাবিক।