ভারতে তৃতীয় দফায় লকডাউন বেড়ে ১৭ মে

ভারতে তৃতীয় দফায় লকডাউন বেড়ে ১৭ মে
  • 7
    Shares

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ভারতে লকডাউনের মেয়াদ ফের বাড়ানো হয়েছে। তৃতীয় দফায় লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি পেল ১৭ মে পর্যন্ত। এর আগে আগামী ৩ মে শেষ হওয়ার কথা ছিল দ্বিতীয় দফার লকডাউন।

শুক্রবার (১ মে) আরও ২ সপ্তাহের জন্য লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর কথা জানিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

উল্লেখ্য, করোনার প্রকোপ রুখতে গত ২৫ মার্চ ভারতে প্রথম লকডাউন জারি করা হয়। প্রথম দফার লকডাউন শেষ হয় গত ১৪ এপ্রিল। ফের ১৫ এপ্রিল থেকে ৩ মে পর্যন্ত দ্বিতীয় দফার লকডাউন ঘোষণা করে মোদি সরকার।

তৃতীয় দফার লকডাউনে বন্ধ থাকছে রেল-বিমান-মেট্রো পরিষেবা। সড়কপথে আন্তঃরাজ্যে পরিবহন বন্ধ থাকবে। স্কুল-কলেজসহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকবে হোটেল, রেস্তোরাঁ, সিনেমা হল, শপিং মল, জিম, স্পোর্টস কমপ্লেক্স। বন্ধ সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক জমায়েত। বন্ধ ধর্মীয় স্থান।

ছাড় দেওয়া হয়েছে ট্যাক্সি ক্যাব। চালক ছাড়াও দু’জনকে নিয়ে গাড়িতে করে যাতায়াত করা যাবে, তবে তা অনুমতি সাপেক্ষ। দু’চাকার গাড়ির সঠিক কারণ ছাড়া ছাড় নয়। ড্রাগ, ফার্মাসিউটিক্যালস, মেডিকেল ডিভাইস, বিভিন্ন অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের কাঁচামাল তৈরিতে অনুমতি। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে হার্ডওয়ার ও জুট শিল্পে অনুমতি। শহরাঞ্চলে নির্মাণকাজে ছাড়। কৃষিক্ষেত্রে ফসল উৎপাদন, বীজ বপন ও পশুপালন ও মাছের চাষের অনুমতিসহ আরও কয়েকটি প্রকল্পে ছাড় দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে রেড জোন, অরেঞ্জ জোন ও গ্রিন জোনের তালিকা প্রকাশ করল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ভারতের মোট ১৩০ জেলাকে রেড জোনের তালিকায় রাখা হয়েছে। অরেঞ্জ জোনের তালিকায় রয়েছে ২৮৪টি জেলা। ৩১৯টি জেলাকে গ্রিন জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। সর্বশেষ খবর অবধি পশ্চিমবঙ্গে করোনা সক্রিয় ৫৭২ জনের দেহে, মৃত ৩৩ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৩৯ জন। ভারতে নিরিখে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫ হাজার ৩৬৫ জন এবং মৃত ১ হাজার ১৫২ জন।