মৃত্যুর পর জানা গেল তিনি সত্তর দশকের হিট নায়িকা

মৃত্যুর পর জানা গেল তিনি সত্তর দশকের হিট নায়িকা
  • 1
    Share

নায়ক ওয়াসিমের ‘জিঘাংসা’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছিলো ১৯৭৪ সালে। সে ছবিটি ছিলো সুপারহিট। এতে নায়িকা হিসেবে ছিলেন জবা চৌধুরী।

এই একটা সিনেমাই তিনি করেছিলেন। এরপর ওই ছবির প্রযোজক তাহের চৌধুরীকে বিয়ে করে রুপালি জগত থেকে বিদায় নেন। তারপর আর কোনো খবর ছিলো না তার।

আবার তার খোঁজ মিললো মৃত্যুর পর। গতকাল রোববার ৩ মে দিনাজপুরে নিজ বাড়িতেই মারা যান জবা। সেখানেই হয়েছে তার দাফন।

প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, দিনাজপুরের রানীর বন্দর এলাকার বাসিন্দা ছিলেন জবা। দীর্ঘদিন ধরেই ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ নানা ধরনের রোগে ভুগছিলেন তিনি। কেউ তার খবর জানতো না। তিনিও কারও কাছে আসেননি কোনোদিন নায়িকা পরিচয় নিয়ে।

জানা গেছে, ২০০৭-২০০৮ সালের দিকে তার স্বামী মারা যান। এরপর তিনি গ্রামে ফিরে যান। কোনো সন্তান ছিলো না এ দম্পতির। তাই বেশ অর্থকষ্ট নিয়েই জীবন কাটাতে হয়েছে তাকে, শেষ বয়সে। নিরবে নিভৃতে অনাদরে তিনি চলেন না ফেরার দেশে।

১৯৬৭ সালে খালাতো ভাইয়ের হাত ধরে ঢাকায় আসেন জবা চৌধুরী। তখন তার নাম জোবায়দা খাতুন। এসে যোগ দেন মঞ্চনাটকে। বেশ কিছু বিখ্যাত নাটকে তিনি নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেন। একসময় প্রযোজক তাহের চৌধুরীর সঙ্গে পরিচয় হলে তিনিই তার সিনেমায় নায়িকা হিসেবে সুযোগ দেন। সেই সিনেমা চলাকালীন তারা প্রেমে পড়ে বিয়ে করেন।

‘জিঘাংসা’ সিনেমায় খুরশিদ আলম ও রুনা লায়লার গাওয়া ‘পাখির বাসার মতো দুটি চোখ তোমার, ঠিক যেন নাটোরের বনলতা সেন’ গানটি তুমুল জনপ্রিয় ছিলো সত্তর দশকে। এই গানে পর্দায় ঠোঁট মিলিয়েছিলেন ওয়াসিম ও জবা চৌধুরী।