হজ অনিশ্চয়তায় অপূর্ণই রইল ৭২৬০৪ যাত্রীর কোটা

হজ অনিশ্চয়তায় অপূর্ণই রইল ৭২৬০৪ যাত্রীর কোটা
  • 3
    Shares

চলতি বছর পবিত্র হজ গমনেচ্ছু যাত্রীদের নিবন্ধনের জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়ের শেষবারের মতো বেঁধে দেয়া নির্ধারিত সময়সীমা (৩০ এপ্রিল) শেষ হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় তিন হাজার ৪৫৭ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬১ হাজার ১৩৭ জনসহ মোট ৬৪ হাজার ৫৯৪ জন নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন।

ফলে সৌদি সরকার কর্তৃক বাংলাদেশি হজযাত্রীদের জন্য নির্ধারিত এক লাখ ৩৭ হাজার ১৯৮ জনের কোটা সম্পূর্ণ পূরণ হলো না। যোগবিয়োগের হিসাবে ৭২ হাজার ৬০৪ জনের কোটা অপূর্ণই রয়ে গেল। গত ১৬ এপ্রিল ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে হজ গমনেচ্ছুদের নিবন্ধনের জন্য শেষবারের মতো ৩০ এপ্রিলের সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়।

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস প্রকোপের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে চলতি বছর পবিত্র হজপালন নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরির ফলে হজ গমনেচ্ছুদের নিবন্ধনের আগ্রহে ভাটা পড়ে। গত ১ মার্চ থেকে চলতি বছরের হজযাত্রী নিবন্ধন শুরু হয়। প্রাথমিকভাবে হজ নিবন্ধনের সময়সীমা ১৫ মার্চ পর্যন্ত বেঁধে দেয়া হয়েছিল। এরপর তা ২৫ মার্চ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়। পরে পর্যায়ক্রমে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানোর ঘোষণা দেয়া হয়। সর্বশেষ ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত শেষবারের মতো সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়।

উল্লেখ্য, চলতি বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৭ হাজার ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজার ১৯৮ জনসহ সর্বমোট এক লাখ ৩৭ হাজার ১৯৮ জনের হজে যাওয়া কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে নির্ধারিত কোটা পূর্ণ হয়নি। এমতাবস্থায় ধর্ম মন্ত্রণালয় নতুন করে কী সিদ্ধান্ত নেয় তা আগামী দুই-একদিনের মধ্যে জানা যাবে।