১৩ জনের দেহে করোনার উপসর্গ, সৈয়দপুর ইসলামী ব্যাংক লকডাউন

১৩ জনের দেহে করোনার উপসর্গ, সৈয়দপুর ইসলামী ব্যাংক লকডাউন
  • 6
    Shares

ইসলামী ব্যাংকের নীলফামারীর সৈয়দপুর শাখার ১৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিয়েছে। ফলে মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) থেকে ব্যাংকটির কার্যক্রম বন্ধ করে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। শাখা ব্যবস্থাপক এ সংক্রান্ত নোটিশ ব্যাংকের গেটে ঝুলিয়ে দিয়েছেন।

এতে উল্লেখ করা হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ব্যাংক লডকাউন থাকবে।

জানা যায়, গত কয়েকদিন যাবত ইসলামী ব্যাংকের ওই শাখার কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারী জ্বরে আক্রান্ত হন। কোনোভাবেই তাদের জ্বর কমছিল না। এমতাবস্থায় জ্বরের সঙ্গে সর্দি, কাশি ও গলা ব্যথার লক্ষণও দেখা দেয়। ফলে পরিস্থিতি সন্দেহজনক হওয়ায় ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক আনোয়ারুল হক বিষয়টি লিখিতভাবে সিভিল সার্জন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেন। এ প্রেক্ষিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আপাতত সার্বিক কার্যক্রম বন্ধ করে লকডাউন করার নির্দেশ দেয়।

এ ব্যাপারে ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক আনোয়ারুল হক বলেন, আমাদের শাখায় নীলফামারীর উত্তরা ইপিজেডে কর্মরত চীনা ও ইতালিয়ান নাগরিকরা লেনদেন করেন। তারা এখানে এসে কোনো নিয়মই মানতে চান না।

সৈয়দপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. আলিমুল বাশার জানান, ইসলামী ব্যাংকের একটি আবেদন পেয়ে ব্যাংকের ১৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

এদিকে নীলফামারীতে নতুন করে এক নারীসহ আরও চারজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১৪ জন।

সিভিল সার্জন ডা. রনজিৎ কুমার বর্মন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের ল্যাবে মঙ্গলবার সকালে ও বিকেলে জলঢাকা উপজেলার এক নারীসহ তিনজন ও রংপুর মেডিকেল কলেজের ল্যাবে জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার একজনসহ চারজনের করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে।

জাহেদুল ইসলাম/আরএআর/পিআর